1. manobchitra@gmail.com : news :
  2. manobchitra24@gmail.com : News Bd : News Bd
May 23, 2024, 12:39 pm
শিরোনাম
বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য নজির স্থাপন করেছে: আইজিপি ভিয়েতনামের নতুন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন তো লাম গাজীপুরের শ্রীপুরে যুবককে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপন কর্মসূচি গাজীপুরে জাল টাকাসহ গ্রেপ্তার- ০২ বাংলাদেশ পুলিশকে স্মার্ট পুলিশ হিসেবে গড়ে তোলা হচ্ছে: আইজিপি দেশে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে: আইজিপি ইসরায়েলকে লক্ষ্য করে ৭৫টি রকেট ছুড়েছে লেবাননের শক্তিশালী সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ কক্সবাজারের লাল পাহাড়ে আরসার আস্তানায় র‌্যাবের অভিযান রাজধানীতে ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন সেতুমন্ত্রী

ভাড়ায় জেল খাটা ২৪ জন ভুয়া বন্দীকে চিহ্নিত, চট্টগ্রামে রয়েছে সবচেয়ে বেশি ভাড়াটে বন্দী

  • আপডেট সময় Monday, January 29, 2024

অনলাইন ডেস্ক : ২০২৩ সালের ১১ নভেম্বর পর্যন্ত প্রকৃত অপরাধীর পরিবর্তে জেল খাটা ২৪ জন ভুয়া বন্দীকে চিহ্নিত করা হয়েছে। এ ছাড়া কারাগারে এমন ২৯০ বন্দীকে চিহ্নিত করা হয়েছে, যারা একাধিক এনআইডি ব্যবহার করে একাধিকবার কারাগারে ঢুকেছেন। পাঁচটি এনআইডি ব্যবহার করে একই ব্যক্তির পাঁচবার কারাগারে ঢোকার বিষয়টিও প্রিজন ইনমেট ডেটাবেজ সিস্টেমের (পিআইডিএস) মাধ্যমে ধরা পড়েছে।

এনটিএমসির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল জিয়াউল আহসান গণমাধ্যমকে বলেন, পিআইডিএসের মতো তথ্যভান্ডার তৈরি করার ফলে কারাগারে প্রকৃত অপরাধী ও ভুয়া বন্দী শনাক্ত করা সম্ভব হয়েছে। অন্যদিকে পিআইডিএসের মাধ্যমে দ্বৈত বা একাধিক জাতীয় পরিচয়পত্র থাকা বন্দীদেরও শনাক্ত করা সম্ভব হয়েছে। অভিযুক্ত ব্যক্তির ১০ আঙুলের ছাপ, আইরিশ স্ক্যান ও ছবি তোলার মাধ্যমে তথ্য সংরক্ষণের ফলে শীর্ষ সন্ত্রাসীদের গতিবিধি খেয়াল রাখা যাচ্ছে।

সুনামগঞ্জ জেলা কারাগারের জেলার হুমায়ুন জানান, জমির আলী পরিচয়ে এক ব্যক্তি সুনামগঞ্জের আদালতে আত্মসমর্পণ করলে তাঁকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়। পরে কারাগারের কর্মকর্তারা জাতীয় পরিচয়পত্রে (এনআইডি) সংরক্ষিত আঙুলের ছাপের সঙ্গে আসামির আঙুলের ছাপ মেলাতে গিয়ে বুঝতে পারেন, তিনি প্রকৃত আসামি নন। তিনি টাকার বিনিময়ে ভুয়া আসামি সেজে কারাগারে যাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেন।

জমির আলী সেজে কারাগারে যাওয়া এই ব্যক্তির প্রকৃত নাম মো. আবু সামা। ভুয়া তথ্য দেওয়ার দায়ে আদালত তাঁকে কারাদণ্ড দেন।

শুধু সুনামগঞ্জ নয়, দেশের বিভিন্ন কারাগারে এমন ‘ভাড়ায় খাটা’ বন্দীর তথ্য মাঝেমধ্যেই বেরিয়ে আসছে।

চট্টগ্রামে রয়েছে সবচেয়ে বেশি ভাড়াটে বন্দী :

একজনের বদলে আরেকজনের ভাড়ায় জেল খাটার ঘটনা বেশি ঘটেছে চট্টগ্রামে, ১৫টি। চেক প্রত্যাখ্যানের মামলায় সাজাপ্রাপ্ত চট্টগ্রামের বাঁশখালীর নাছির আহমদের বদলে জেল খাটেন ঢাকার সাভারের মজিবুর রহমান। এর বিনিময়ে তিনি পান তিন হাজার টাকা। অবশ্য বেশি দিন কারাবাস করতে হয়নি মজিবুরকে। আঙুলের ছাপ পরীক্ষার সময় ধরা পড়েন তিনি।

জামিনে থাকা মজিবুর সম্প্রতি গণমাধ্যমকে জানান, আমি কোনো মামলার আসামি ছিলাম না। প্রকৃত আসামি নাছির আহমদের পক্ষে আদালতে আত্মসমর্পণ করেছি স্বেচ্ছায়। বিনিময়ে নাছিরের কাছ থেকে তিন হাজার টাকা নিয়েছি। তিনি আমার দোকানে চা খেতে আসতেন, তখন পরিচয়।

জানতে চাইলে কক্সবাজারের মো. শাহ আলম বলেন, বিষয়টি জানার পর আমরা ভুয়া আসামিদের আদালতে পাঠিয়েছি। পরে আদালত তাদের শাস্তিও দিয়েছেন। এখানে কারাগারের কোনো ত্রুটি নেই; বরং কারাগারে আসার পরই জানতে পেরেছি, তারা প্রক্সি দিচ্ছেন।

কারা কর্মকর্তারা জানান, কারাগারে বন্দী আসেন ওয়ারেন্ট কার্ডসহ। এরপর কারাগারের সংস্থাপন শাখা থেকে তাঁর তথ্য ও ছবি সংরক্ষণ করে ‘কেস কার্ড’ তৈরি করা হয়। প্রত্যেক বন্দীকে পিআইডিএসের মাধ্যমে ছাড়পত্র নিয়ে কারাগার ছাড়তে হয়। বন্দীর কারাগারের নিবন্ধন নম্বরের পাশাপাশি পরিচিতি (আইডেনটিফিকেশন) নম্বর করা হয়। বন্দীর ১০ আঙুলের ছাপ সরাসরি এনআইডি সার্ভারের সঙ্গে ক্রস ম্যাচিংয়ের মাধ্যমে ‘ভেরিফায়েড প্রোফাইল’ সংরক্ষণ করা হয়। পিআইডিসে ঢুকে সহজেই যেকোনো কারাবন্দীর সব তথ্য পাওয়া যায়। এ পর্যন্ত পিআইডিএসে ১০ লাখের বেশি আসামির তথ্য সংরক্ষিত আছে।

একাধিক এনআইডি থাকার বিষয়টি বন্দীদের নিবন্ধন করার সময় এনআইডি ডেটাবেজ থেকে তথ্য মেলানোর সময় ধরা পড়ে। এর মধ্যে ১১ জন দুই দফায় কারাগারে গেছেন। তিনবার তিন এনআইডি ব্যবহার করে কারাগারে গেছেন পাঁচজন। চার ও পাঁচবার যথাক্রমে চার ও পাঁচটি এনআইডি ব্যবহার করে কারাগারে গেছেন দুজন।

উল্লেখ্য, বন্দীর তথ্য-উপাত্ত যাচাইসহ (বায়োমেট্রিক ক্রস ম্যাচিং) নিবন্ধন করে রাখার জন্য দেশের সব কারাগারে পিআইডিএস স্থাপন করা হয়েছে। পিআইডিএস স্থাপনের কাজটি করেছে ন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন মনিটরিং সেন্টার (এনটিএমসি)।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2021 ManobChitra
Theme Customized By BreakingNews